Zif ci খাওয়ার নিয়ম - zif ci কেন খায়

আসসালামু আলাইকুম প্রিয় বন্ধুরা, প্রায় সকলে রক্তশূন্যতায় এবং আইরনের ঘাটতিতে ভুগেন আপনি কি জানেন আয়রন ঘাটিপূরণে Zif ci খাওয়ার নিয়ম সম্পর্কে। বা আপনি কি জানেন কেন খায়, তো বন্ধুরা আপনারা অবশ্যই জেনে নেবেন এই পোস্টটির মাধ্যমে।
Zif ci খাওয়ার নিয়ম - zif ci কেন খায়
প্রিয় বন্ধুরা আপনাদের শরীরে অনেকের অনেক রকম রোগ রয়েছে এবং অনেকেই অসুস্থতায় ভুগছেন তবে আপনারা এই আপনারা মাধ্যমে Zif ci খাওয়ার নিয়ম সম্পর্কে সবকিছু জানতে পারবেন এবং আপনারা যারা জানেন না যে zif ci কেন খায় তারা অবশ্যই এই পোস্ট এর মাধ্যমে জেনে নিবেন।

ভূমিকা

Zif ci একটি ট্যাবলেট। যা অনেকেই তাদের শরীরে আয়রনের ঘাটতি পূরণের জন্য খেয়ে থাকে। কারণ এই ট্যাবলেট রয়েছে ৯৮ শতাংশ আইরন। এছাড়াও আরো রয়েছে ফলিক অ্যাসিড,জিংক,সালফেট। এগুলো দিয়ে ই মূলত প্রস্তুত করা হয়েছে,Zif ci ট্যাবলেট। এই ওষুধ,কার্বনিল আয়রনের উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন হয়ে থাকে। বায়োএভেইলেবিলিটি থাকাই এটির বিষ প্রতিক্রিয়া খুবই কম রয়েছে। 
আরো পড়ুন 
এটি একটি ট্যাবলেট এবং নিরাপদে কি ট্যাবলেট এবং এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে আইরন। তো বন্ধুরা আপনারা যদি এই পোস্টে,Zif ci সম্পর্কে জানতে চান তাহলে আপনাকে এই পোস্ট পুরোপুরি করতে হবে। কারণ এই পোষ্টের মাধ্যমে।

আপনি জানতে,Zif ci ট্যাবলেট খাওয়ার নিয়ম এবং,Zif ci ট্যাবলেট খাওয়ার মাধ্যমে কি কি উপকার হতে পারে তাহলে বন্ধুরা চলুন আজ দেখা আছে যাক এই পোস্টে কি রয়েছে Zif ci সম্পর্কে।

zif ci কেন খায়

প্রিয় বন্ধুগণ আজকের এই পোস্টে আপনাদেরকে জানানো হবে,zif ci কেন খায়। প্রিয় বন্ধুরা,Zif ci ট্যাবলেট একটি উচ্চ আয়রন ক্ষমতা সম্পন্ন ট্যাবলেট। অনেকে অনেক সময় এমন ধরনের প্রশ্ন করেন যে,zif ci কেন খায়। চলুন আজ আপনাকে সে বিষয়ে জানানো যাক। এই ওষুধটি বিশেষ করে গর্ভ অবস্থায় যারা রয়েছেন গর্ভবতী তাদের জন্য। 

গর্ভাবস্থায় একটি মেয়ের আয়রনের সমস্যা হয়ে থাকে এবং সে সমস্যা থেকে দূর হওয়ার জন্য তারা,Zif ci খেয়ে থাকে। কারণ শরীরে আয়রনের ঘাটতি থাকলে রক্তের পরিমাণ কমে যায় এবং শিশুর অক্সিজেনের অভাব হয়। এতে মা ও শিশু দুইজনেই ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এজন্য গর্ভবতীরা Zif ci ওষুধ খাওয়ার প্রয়োজন।
আরো পড়ুন 
এছাড়াও এই ওষুধটি, স্তন্যপান করানোর সময়, ফলিক এসিড আয়রন ও জিংকের ঘাটতি হতে পারে। এই ঘাটতি পূরণের জন্য এই ওষুধ রয়েছে। কিন্তু যাদের শরীরে অতিরিক্ত আয়রন রয়েছে তারা এই ওষুধ খাওয়া থেকে বিরত থাকবেন।

Zif ci এর কাজ কি

প্রিয় বন্ধুগণ আজকের এই পোস্ট আপনাদেরকে জানানো হবে,Zif ci এর কাজ কি। এই ট্যাবলেটটি আয়রন ফলিক এসিড এবং জিংকের ঘাট কে পূরণ করে থাকে। এই ওষুধে রয়েছে ৯৮% আয়রন, এজন্য যাদের আয়রনের সমস্যা হয়ে থাকে তাদের ক্ষেত্রে এই ওষুধটি খাওয়ার জন্য ডাক্তারগণ দিয়ে থাকে। গর্ভবতীদের এবং স্তন্যপান করার সময় আইরন ফলিক এসিড।

এবং জিংক এর অভাব জানানো হয়ে থাকে এবং প্রতিরোধের জন্য এই ওষুধটি ডাক্তার গণ নির্দেশ দিয়ে থাকে খাওয়ার জন্য। যারা আয়রনের অভাবে ভুগছেন এবং আয়রনের জন্য বিভিন্ন ধরনের সমস্যার শরীরে তৈরি হচ্ছে তারা এই ওষুধটি গ্রহণ করতে পারেন। একজন গর্ভবতীর জন্য এই ওষুধ অনেক প্রয়োজনীয়। গর্ভাবস্থায় তারা অনেক কিছু খেতে পারে না।

এজন্য তাদের আয়রনের সমস্যা হয়ে থাকে। এসব আয়রণের সমস্যা দূর করার জন্য অথবা আয়রনের ঘাটতি প্রণয়ের জন্য, এই ওষুধটি ডাক্তার গণ দিয়ে থাকে। কারণ আয়রনের অভাবে গর্ভবতীর শরীরে রক্তস্বল্পতা দেখা যায় এবং রক্তস্বল্পতার কারণে শিশু ঠিকমত অক্সিজেন গ্রহণ করতে পারে না। এমন অবস্থায় মা ও শিশু দুজনার ক্ষতি হতে পারে।

 গর্ভবতী হওয়ার প্রথম তিন মাস আয়রন ফলিক এসিড ও জিংক খেতে হয় যা সবকিছুই বিদ্যমান রয়েছে এই ওষুধে। তাহলে বন্ধুগণ আপনারা এই পোস্টটি বিস্তারিত ভাবে জানলেন,Zif ci এর কাজ কি, এবং এদের ডাক্তারগণকে জন্য দিয়ে থাকে।

Zif CI এর উপকারিতা

এবার আপনাদেরকে জানানো হবে,Zif CI এর উপকারিতা‌ উপরের অংশে,Zif ci সম্পর্কে অনেক তথ্য জেনেছেন। এবার আপনাদেরকে জানানো হবে উপকারিতা সম্পর্কে।Zif ci এর উপকারিতা মধ্যে আরেকটি বিষয় হচ্ছে, এটি পাকস্থলীর অসচ্ছন্দ এর যেগুলো ঝুঁকি রয়েছে তা কমিয়ে আনতে সক্ষম হয়। এ ওষুধ টি খাওয়ার ফলে, কোন এলার্জির বিক্রিয়া হয় না।

 এই ওষুধটিতে ফলিক এসিড, জিংক ,আয়রন থাকায় গর্ভবতীদের এবং স্তনপান যখন করানো হয় তখন এসবের ঘাটতি না হওয়ার কারণে এই ওষুধটি খাওয়ানো হয়ে থাকে। এবং প্রতিরোধক হিসেবে ওষুধটি ব্যবহার করে থাকে। প্রথম তিন মাসের মধ্যে যখন গর্ভবতীদের আয়রন জিংক এবং ফলিক এসিডের সমস্যা থাকে।
আরো পড়ুন 
তারা কেমন করে থাকে এবং ঘাটতি পূরণ করে। গর্ভবত অবস্থায় তিন মাসের সেবন করলেই হয়। এরপর থেকে তাহলে আপনারা বুঝে গেলেন যে এই ট্যাবলেটের উপকারিতা আসলে কি।

Zif ci খাওয়ার নিয়ম

প্রিয় বন্ধু, এবার আপনাদের জানানো হবে,Zif ci খাওয়ার নিয়ম। অনেকেই জানেন এটি একটি উচ্চ আয়রন ক্ষমতা সম্পন্ন একটি ওষুধ। যাদের আয়রন রয়েছে তারা দয়া করে এই অভিযোগ থেকে বিরত থাকার চেষ্টা করবেন। একটি আপনি দিনে একটি করে গ্রহণ করতে পারবেন। এছাড়া আপনি যদি এই ওষুধটি অতিরিক্ত গ্রহণ করে থাকেন ।

তাহলে, আপনি কিছু কিছু রোগের সম্মুখীন হয়ে যাবেন। রোগ গুলো হল, বমি বমি ভাব হওয়া, তলপেটে ব্যথা, দুর্বলতা ইত্যাদি। অনেকেই অনেক সময় এটার প্রশ্ন করে থাকেন যে এটা খাওয়ার নিয়ম কি তো এটা খাওয়ার নিয়ম আজকে আপনাদেরকে এই আর্টিকেলের একটি অংশে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে । অনেকের মনে আবার প্রশ্ন জাগতে পারে। 

যে এটি একটি করে কেন খেতে হবে দুইটি খেলে সমস্যা কি। তো প্রথমে বলা যায় যে এই ওষুধটি উচ্চ আয়রন ক্ষমতা সম্পন্ন এবং এর সাথে ফলিক এসিড এবং জিংক রয়েছে। দিনে দুটি করে গ্রহণ করলে হয়তো আপনি এই ওষুধের ক্ষমতা সহ্য করতে পারবেন না।

এজন্য আপনাকে নিয়ম করে দিনে একটি করে ওষুধ গ্রহণ করতে হবে। এবং দেখবেন নিয়ম করে এই ওষুধ ব্যবহারের মাধ্যমে আপনার রোগ সেরে গিয়েছে। এবং এটির ডাক্তারের পরামর্শ গ্রহণ করা উচিত।

Zif CI price in Bangladesh

প্রিয় বন্ধুগণ এবার আপনাদের জান হবে,Zif CI price in Bangladesh। অনেকেই অনেক কিছু জানলেন এই পথ থেকে কিন্তু এত কিছুর মধ্যে আমাদের জানা হয়ে ওঠে না এই ওষুধটির বাংলাদেশ টাকায় কত টাকা হতে পারে।Zif CI price in Bangladesh বাংলাদেশে এর সঠিক দাম কত তা আজ বিস্তারিতভাবে জানবে পোস্টে। এই ওষুধের ইউনিট মূল্য ৫ টাকা এবং স্ট্রিপ মূল্য ৫০ টাকা।
আরো পড়ুন 
বন্ধুরা আপনারা তাহলে জেনে গেলেন। এই পোস্টে ওষুধের দাম কত। বাংলাদেশে এ ওষুধের দাম মাত্র ৫০ টাকা যেটা আপনাদেরকে এই পোষ্টের মধ্যে বলে দেয়া হয়েছে। এই অংশে যা যা আলোচনা করা হয়েছে তা আপনি ধারণা পেয়েছেন এবং আশা করা যায় আপনি তা বুঝে গেছেন।

শেষ কথা

প্রিয় বন্ধু আজকের এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনাদেরকেZif ci ট্যাবলেট সম্পর্কে অনেক তথ্য জানানো হয়েছে। আশা করা যায় এই অংশে আপনারা এই ট্যাবলেট সম্পর্কে যা জেনেছেন তা যথেষ্ট। এবং যথেষ্ট পরিমাণ চেষ্টা করা হয়েছে এই ট্যাবলেট সম্পর্কে আপনাদের কাছে সব তথ্য তুলে ধরার। আপনারা যদি এই আর্টিকেলে এই ট্যাবলেট সম্পর্কে সব বিস্তারিত ভাবে বুঝতে পারেন। 

তাহলে এই ওয়েবসাইটটি প্রতিদিন নিয়ম করে ভিজিট করবেন। এবং এতক্ষণ এই যে আপনি আপনার ব্যস্ত সময় মধ্যে থেকে এই যে সময় বের করে আমাদের ওয়েবসাইটে এতক্ষণ ছিলেন তার জন্য আপনাকে, ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

ফার্স্ট ব্লগার আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url